Header Border

ঢাকা, রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল) ৩১.৯৬°সে

বিদায়ের পথে নেতানিয়াহুর

সময় সংবাদ লাইভ রির্পোটঃ দুই বছরের মধ্যে চারবার জাতীয় নির্বাচন হওয়ার পরও ইসরায়েলের রাজনীতিক সংকট সমাধানে এবার নতুন মোড় দেখা যাচ্ছে। গতকাল রবিবার নেতানিয়াহুর বিরোধী শক্তি রাজনৈতিক সমঝোতার পথে হাঁটছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আর তা সফল হলে ইসরায়েলের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর বিদায়ের ঘণ্টা বাজবে। খবর বিবিসি ও হারেৎজ।

এবার ২৩ মার্চ পার্লামেন্ট নির্বাচনে কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় বিরোধীদলীয় নেতা ইয়ার লিপিদ নতুন সরকার গঠনের জন্য ২৮ দিনের সময় পেয়েছেন যা আগামী বুধবার শেষ হতে চলেছে। কিন্তু তার আগেই গতকাল রবিবার সমঝোতার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা তারা করছে। সরকার গঠনে লিপিদ সফল হবেন কিনা, তার অনেকটাই এখন নির্ভর করছে কট্টর ডানপন্থি রাজনীতিক নাফতালি বেনেতের ওপর, পার্লামেন্টে যার ইয়ামিনা পার্টির ছয়টি আসন আছে।

ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম হারেৎজের খবরে বলা হয়, বেনেত বলেছেন তিনি নেতানিয়াহু ছাড়াই সরকার গঠন করবেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, সরকার গঠন করা আমাদের স্বপ্ন কিন্তু আমাদের লক্ষ্য হলো এটি কীভাবে কার্যকর থাকবে। এ দুই দলের জোট সরকার কার্যকর হলে নেতানিয়াহুর যুগ অবসান হবে এ কথা ঠিক কিন্তু তার আগে আরও কিছু জটিল হিসাব-নিকাশ রয়েছে। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ক্ষমতা ধরে রাখতে নেতানিয়াহু শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবেন।

গতকালই তার দল লিকুদ পার্টি এক বিবৃতিতে প্রস্তাব দিয়েছে, বিরোধী দলের সঙ্গে পর্যায়ক্রমে প্রধানমন্ত্রীর পদে নেতৃত্ব দেওয়ার। এ ছাড়া ইয়ামিনা দলের প্রধান নাফতালি বেনেতকে হুশিয়ারি দিয়ে নেতানিয়াহু বলেছেন, যে কোনো মূল্যে প্রধানমন্ত্রিত্ব রাখবেন তিনি। লিকুদ পার্টির ওই বিবৃতিতে বলা হয়, এ জোটকে সমর্থন করলে বেনেত তার ভোটারদের সঙ্গে প্রতারণা করা হবে। অন্যদিকে বেনেত জোটের বৈঠক গতকালই শেষ করেছেন বলে সূত্র জানিয়েছে। বৈঠক শেষে তিনি সংবাদমাধ্যমে বিবৃতি দেন। সেখানে তিনি বলেন, নেতানিয়াহু ছাড়াই তারা সরকার গঠন করবেন।

এদিকে বিশ্লেষকরা এ জোটের স্থায়িত্ব নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেছেন। কেননা নেতানিয়াহু ছাড়া সরকার গঠন করতে হলে ডান, মধ্যপন্থি এমনকি বামপন্থিদেরও একজোট হতে হবে।

এ ছাড়া এ জোটের সরকার গঠনের জন্য পার্লামেন্টের আরব সদস্যেরও সমর্থন প্রয়োজন হতে পারে। কিন্তু ইয়ামিনা ও আরব সদস্যদের দৃষ্টিভঙ্গির মধ্যে বড় ধরনের বৈপরীত্য রয়েছে। এখানে সংকট দেখা দিতে পারে। শুধু নেতানিয়াহু ইস্যুতে তারা এক হতে পারবে কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

সময় সংবাদ লাইভ।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

দুবাইয়ে গোপন সম্পদের পাহাড়, তালিকায় ৩৯৪ বাংলাদেশি
থাইল্যান্ড গেলেন প্রধানমন্ত্রী
ইরানি পরমাণু স্থাপনায় হামলা চালাবে ইসরাইল !
‘পৃথিবীর কোনো শক্তিই আমাদের বিরত রাখতে পারবে না’-নেতানিয়াহু
বাংলাদেশী নাবিকদের হত্যার হুমকির জলদস্যুদের
রমজানে গাজায় ত্রাণ পাঠাল বাংলাদেশ

আরও খবর