Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল) ৩০.৯৬°সে

মোদি না রাহুল, কে হচ্ছেন ভারতের কান্ডারি?

সময় সংবাদ রিপোর্টঃ   ভারতে আজ মঙ্গলবার পার্লামেন্ট তথা লোকসভার নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হচ্ছে। ১৯ এপ্রিল থেকে ১ জুন পর্যন্ত ৪৪ দিনের বেশি সময় ধরে অনুষ্ঠিত সাত ধাপের লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের জন্য দেশটিতে আজ ভোট গণনা চলছে।

স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোট গণনা। ধারণা করা হচ্ছে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেওয়ায় ভোট গণনা খুব দ্রুত শেষ হবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে জানা যায়, ভারতে এবার লোকলভা নির্বাচনে প্রায় ৯৭ কোটি মানুষ ভোট দেওয়ার যোগ্য ছিল। এর মধ্যে ৩১ কোটি ২০ লাখ নারী ভোটারসহ মোট ৬৪ কোটি ৩০ লাখ ভোটারের অংশগ্রহণে ভারত এবার একটি বিশ্ব রেকর্ড সৃষ্টি করেছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঐতিহাসিক তৃতীয় মেয়াদে জয়ী হবেন নাকি বিরোধীদের পুনরুত্থানে তা বাধাগ্রস্ত হবে সেটি অর্থাৎ ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনের ম্যান্ডেট আজ জানা যাবে। লোকসভা নির্বাচনের ভোটগণনার পাশাপাশি ওড়িশা ও অন্ধ্র প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনাও হবে আজ।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে দুটি বড় জোটের তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা দেখা গেছে। এর একটি দেশটির ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) এবং অন্যটি কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইন্ডিয়া জোট। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এনডিএ জোট টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। অন্যদিকে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইন্ডিয়া জোটও নির্বাচনে ভূমিধস জয়ের ব্যাপারে আশাপ্রকাশ করেছে।

বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট ‘এনডিএ’ বা বিরোধীদের ‘ইন্ডিয়া’ জোটের বাইরেও অবশ্য বেশ কয়েকটি প্রভাবশালী আঞ্চলিক দল রয়েছে – অর্থাৎ এই দলগুলো ভোটে লড়েছে কোনও জোটের অংশ না হয়েই। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস, ওড়িশার বিজু জনতা দল, অন্ধ্র প্রদেশের ওয়াইএসআর কংগ্রেস, উত্তর প্রদেশের বহুজন সমাজ পার্টি প্রভৃতি রাজনৈতিক দল।

এদিকে প্রায় সব বুথফেরত জরিপ বলছে, এনডিএ জোট জিতবে। এমনকি, রাজনৈতিক মহলেরও ধারণা, তৃতীয়বার প্রধানমন্ত্রীর আসনে সম্ভবত বসতে চলেছেন মোদি। কারণ, বিরোধী যতই জোট করুক না, মোদির বিকল্প হিসেবে কাউতে তুলে ধরতে পারেনি তারা। বিরোধীদের পাল্টা যুক্তি, অতীতে বহুবার নীরবে বিপ্লব ঘটে গিয়েছে। যা সবাই ভেবেছে, ভোটের ফল তার সম্পূর্ণ উল্টা হয়েছে।

ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভার মোট আসন ৫৪৩টি। এবার নির্বাচন হয়েছে ৫৪২টি আসনে। প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৮ হাজার ৩৯১ জন প্রার্থী। সরকার গঠন করার জন্য প্রয়োজন ২৭২টি আসনের।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন বিজেপি ৩০৩টি আসনে জয় পেয়েছিল, যা দলটির ২০১৪ সালের নির্বাচনের তুলনায় ২১টি আসন বেশি। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ৩৫০টি আসন দখল করতে সক্ষম হয়। অপরদিকে প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস মাত্র ৫২টি আসনে জয় নিশ্চিত করে, যা দলটির ২০১৪ সালের ৪৪টি আসনের তুলনায় সামান্য বেশি।

আর এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি একাই ৩৭০টি আসন এবং জোটবদ্ধভাবে ৪০০টি আসনে জয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। তিনটি সংস্থার বুথফেরত জরিপ বলছে, বিজেপির এই উচ্চাভিলাষী লক্ষ্য অর্জন করতে পারে। তবে ১২টি সংস্থার জরিপে দেখা গেছে, এনডিএ ৩৬৫টি আসন পেতে পারে। যা এনডিএ জোটের লক্ষ্যমাত্রার নিচে হলেও, দেশটিতে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় ২৭২ আসনের চেয়ে অনেক বেশি।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

হজে গিয়ে ১০ বাংলাদেশির মৃত্যু
কর ও ভ্যাটের চাপ আরও বাড়বে
ইসরাইলের সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ ড্রোন হামলা হিজবুল্লাহর
ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে সব দেশের প্রতি আহ্বান জাতিসংঘের
ঢাকার কাছেই চলে এসেছে সবচেয়ে বিষধর রাসেলস ভাইপার
রেলওয়ের ৭১৩ কোটি টাকার ‘গচ্চা প্রকল্প’

আরও খবর