Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল) ২৮.৯৬°সে

উপ-নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে গাইবান্ধায় আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ

সময় সংবাদ রিপোর্ট :  অনিয়ম, কারচুপির অভিযোগে গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ ঘোষণার প্রতিবাদে ওই সংসদীয় এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। এরপরইক্ষোভে ফেটে পড়েন নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা। তারা দলে দলে ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদের সামনে রাস্তায় এসে অবস্থান নেন। পরে তারা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন।

অবরোধের কারণে উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে ফেরত আসা নির্বাচনী সরঞ্জামসহ সব ধরনের মালামাল নিয়ে আটকা পড়েন ভোটগ্রহণকারী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টরা। সন্ধ্যা পর্যন্ত তাদের এ অবরোধ অব্যাহত থাকে।

অবরোধ চলাকালে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জি এম সেলিম পারভেজ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ রঞ্জু, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এ টি এম রাশেদুজ্জামান রোকন, উদাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আসাদুজ্জামান বাদশা, আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম, উদাখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহদী মাসুদ পলাশসহ অনেকে।

গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণার প্রতিবাদে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মিছিল করেন

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও ভোট বর্জন ছিল পূর্ব পরিকল্পিত। ভোট বানচালের ষড়যন্ত্র ছিল আগে থেকেই। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর নৌকা প্রতীক সম্বলিত গেঞ্জি গায়ে জাতীয় পার্টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মীরা পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ভোট কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে পূর্ব পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ভোট বানচাল করা হয়। সব কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিতের সিদ্ধান্ত বাতিল করে যেসব কেন্দ্রে সুষ্ঠভাবে ভোটগ্রহণ করা হয়েছে, সেসব কেন্দ্রের ভোটের ফল ঘোষণার দাবি জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

এদিকে, ইসির পক্ষ থেকে নির্বাচন বন্ধের ঘোষণার আগেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মাহমুদ হাসান রিপন ছাড়া একযোগে বাকি চার প্রার্থী ভোট বর্জন করেছিলেন। ভোট বর্জন করা প্রার্থীরা হলেন জাতীয় পার্টির এ এইচ এম গোলাম শহীদ রঞ্জু, বিকল্পধারার জাহাঙ্গীর আলম, স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদুজ্জামান নিশাদ ও সৈয়দ মাহবুবুর রহমান।

২৩ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া। তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর তফসিল অনুযায়ী আজ বুধবার ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

হজে গিয়ে ১০ বাংলাদেশির মৃত্যু
কর ও ভ্যাটের চাপ আরও বাড়বে
ইসরাইলের সামরিক ঘাঁটিতে ভয়াবহ ড্রোন হামলা হিজবুল্লাহর
ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে সব দেশের প্রতি আহ্বান জাতিসংঘের
মোদি না রাহুল, কে হচ্ছেন ভারতের কান্ডারি?
ঢাকার কাছেই চলে এসেছে সবচেয়ে বিষধর রাসেলস ভাইপার

আরও খবর