Header Border

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল) ৩৬.৯৬°সে

নিষেধাজ্ঞার খাতা থেকে উঠে গেছে সাকিব আল হাসানের নাম

সময় সংবাদ লাইভ রিপোর্ট : ঘড়ির কাঁটায় রাত ১২টা বাজার সঙ্গে সঙ্গেই নিষেধাজ্ঞার খাতা থেকে উঠে গেছে সাকিব আল হাসানের নাম। এবার ক্রিকেটের আকাশে দেশের সবচেয়ে বড় এই ‘বিজ্ঞাপন’ উড়বেন ডানা মেলে। অস্ট্রেলিয়া থেকে ক্যারিবীয়, আইপিএল, পিএসএল কিংবা বিগব্যাশ; বিশ্বজুড়ে খেলে বেড়ানো সাকিব বন্দি ছিলেন খাঁচায়। অবশেষে সেই খাঁচা থেকে মুক্ত হলেন সাবেক বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় গত বছর অক্টোবর মাসেই সব ধরনের ক্রিকেটে সাকিবকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দেয় আইসিসি। এর মধ্যে রয়েছে এক বছরের স্থগিত নিষেধাজ্ঞা। আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী নীতিমালার আইন লঙ্ঘনের অপরাধে সাকিবকে এ শাস্তি দেয় বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। এই শাস্তি শেষ আজ থেকে সাকিব মুক্ত। তার ফেরা নিয়ে জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটাররা জানিয়েছেন সে ফিরবে আরও ক্ষুধার্ত হয়ে, ছন্দে ফিরবে খুব দ্রুত। আমাদের সময়ের পাঠকদের জন্য সাবেকদের প্রতিক্রিয়া তুলে ধরা হলো…

হাবিবুল বাশার সুমন : সাকিবের প্রত্যাবর্তন আপনি যদি বলেন আগের মতো হবে কিনা, আমি বলব অবশ্যই হবে, কারণ সে ভিন্নমাত্রার একজন খেলোয়াড়। আমাদের পরবর্তী সিরিজ পর্যন্ত যে সময়টা পাবে তার রিদমে ফেরার জন্য এটা যথেষ্ট। সে পুরনো ছন্দ ফিরে পাওয়ার জন্য যথেষ্ট সময় পাবে। আমার মনে হয় সে আরও বেশি ক্ষুধা নিয়ে ফিরবে। সে দলের একজন খেলোয়াড় সে থাকলে দল অনেক কনফিডেন্সের মধ্যে থাকে। দলের কম্বিনেশনটাও ভালো হয়। তাকে দল মিসও করেছে এই সময়টা।

খালেদ মাসুদ পাইলট : আমি এটাকে (সাকিবের শাস্তি) পজিটিভ দিক হিসেবেই দেখব। যেহেতু খেলাই হয়নাই করোনা ভাইরাসের কারণে তাই তাঁর কোনো ক্ষতিও হয় নাই। করোনাকালে যেহেতু খেলাই হয় না এই বিরতিটা নতুনভাবে তার মধ্যে একটা উদ্দীপনা তৈরি করবে। সে গ্রেট খেলোয়াড়, তার মধ্যে মেধা আছে, নিজেকে প্রমাণ করেছে। আমি মনে করই সে ভুলগুলো খুঁজে বের করে সামনের সাকিব আরও গোছালো হবে। আর আমি সাকিবের কামব্যাক না করার কিছু দেখি না। খুব অল্প সময়ের মধ্যে সে পারফর্ম করবে। সে বোলিং-ব্যাটিং দুটাই সমান পারে, তার জন্য আরও সহজ বিষয়টা।

শাহরিয়ার নাফীস : সাকিব গত এক বছর বাংলাদেশের ক্রিকেটে ছিল না, বাংলাদেশ খুব বেশি ম্যাচও খেলেনি। সাকিব না থাকায় বাংলাদেশ দলের কোনো ক্ষতি হয়নি। সাকিব পুরো ক্যারিয়ারে বাংলাদেশ দলকে যেভাবে সার্ভিস দিয়েছে, নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে এসে ওভাবেই সার্ভিস দিবে। বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের প্রতি একটা অনুরোধ থাকবে তারা যেন সাকিবের ক্যারিয়ার থেকে শিক্ষা নেয়। যত বড় খেলোয়াড়ই হোক না কেন কোনো ভুল করলেই এঁর বড় খেসারত দিতে হবে।

নাফিস ইকবাল : সাকিব খুব বড় একজন খেলোয়াড়। সে একটা বড় উদাহরণ বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের জন্য। সে ফিরছে এটা খুবই ভালো একটা সংবাদ। করোনার জন্য খেলাটা অনেক কম হয়েছে, তাই আমার মনে হয় সাকিবের সার্ভিসটা কম পাওয়া নিয়ে অনুভব হয়নি। আর ও থাকলে আইপিএলে খেলতো ঐ জায়গায় তাকে দর্শকরা মিস করেছে। যতদূর আমি সাকিবকে চিনি সে মানসিকভাবে খুব একটা শক্তিশালী ছেলে, আমি মনে করি সে মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকবে। ক্রিকেট মাঠে এসে খেলা শুরুটা তার জন্য কঠিন হতে পারে, কিন্তু সে দ্রুত ছন্দে ফিরবে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

চাহিদা অনুযায়ী অর্থ দিতে পারছে না ব্যাংক
ভয়ংকর রূপ নিচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘রেমাল’, আঘাত হানতে পারে ২৬ মে
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ
যেভাবে হজ পালন করবেন
দুবাইয়ে গোপন সম্পদের পাহাড়, তালিকায় ৩৯৪ বাংলাদেশি
সড়কে মৃত্যুর মিছিল:দশ বছরে প্রাণহানি ৭৮ হাজার,দায় নিচ্ছে না কেউ

আরও খবর